1. admin@hvoice24.com : admin :
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

হবিগঞ্জে পুলিশ বিএনপি সংঘর্ষে দুই মামলা,জি কে গউছসহ আসামী ১২শ’

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০২৩
  • ১৬৮ বার পঠিত

হবিগঞ্জ শহরের শায়েস্তানগর এলাকায় পুলিশ বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ অ্যাসল্ট ও বিস্ফোরক আইনে দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার (২১ আগস্ট) হবিগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দুটি দায়ের করা হয়। দুটি মামলায় হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহŸায়ক ও সাবেক পৌর মেয়র আলহাজ্ব জি কে গউছকে প্রধান আসামী করা হয়েছে। এতে ৯০ জন করে নেতাকর্মীদের নাম উল্লেখসহ প্রতিটিতে ৬ শ’ করে মোট ১২০০ অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে। হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার এসআই খোরশেদ আলম পুলিশ অ্যাসল্ট ও এসআই ওয়াহেদ গাজী বাদী হয়ে বিস্ফোরক আইনে মামলাটি দায়ের করেন।

জি কে গউছ ছাড়াও মামলার অন্যান্য আসামীরা হল, হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবুল হাশেম, সৈয়দ মোহাম্মদ শাহ জাহান, এনামুল হক সেলিম, মাহবুবুর রহমান আউয়াল, শাহ রাজিব আহমেদ রিংগন, গোলাম মাহবুব, এমদাদুল হক ইমরান, রুবেল আহমেদ চৌধুরী, সৈয়দ মুশফিক আহমেদ, মুর্শেদ আলম সাজন, মহিবুল ইসলাম শাহীন, শফিকুর রহমান সিতু, এনামুল হক, টিপু আহমেদ, জালাল আহমেদ, আব্দুল আউয়াল, জি কে গাফ্ফার, জহিরুল ইসলাম সেলিম, কামাল উদ্দিন সেলিম, গোলাম মাওলা, অলিউর রহমান, হাফিজুল ইসলাম হাফিজ, জহিরুল হক শরীফ, মাহবুবুল হক হেলাল, হাবিবুর রহমান মানিক, শেখ মামুন, এসএম আব্দুল আউয়াল, জি কে ঝলক, মুজিবুল হক মারুফ, নকিব ফজলে রাকিব মাখন, হাজী মোঃ লুৎফুর রহমান, ফরহাদ হোসেন বকুল, মোঃ জিল্লুর রহমান, গোলাম ফারুক।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, গত শনিবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে পদযাত্রা থেকে পুলিশের উপর অতর্কিতে হামলা চালানো হয়। এতে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অজয় চন্দ্র দেবসহ কমপক্ষে ১০ পুলিশ আহত হন। আহত ওসিকে রোববার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা জাতীয় চক্ষু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্য আহতরা হবিগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ বদিউজ্জামান মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, এ পর্যন্ত ১৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতার করতে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

এদিকে, পুলিশ বিএনপি সংঘর্ষে পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এস এম আউয়াল আশংকাজনক অবস্থায় একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে রয়েছেন। এছাড়াও পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটে আহত আরো বেশ কিছু নেতাকর্মী বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এছাড়াও হবিগঞ্জে বিএনপির সন্ত্রাস-নৈরাজ্যের প্রতিবাদে রোববার (২০ আগস্ট) বিকেলে আওয়ামী লীগের প্রতিবাদ ও শান্তি সমাবেশ থেকে সংঘটিত বিএনপি-আ’লীগের সংঘর্ষের ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা