1. admin@hvoice24.com : admin :
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বানিয়াচং ও আজমিরীগঞ্জে উপজেলা নির্বাচন, ভোটার উপস্থিতি নিয়ে শঙ্কা হবিগঞ্জ যাত্রী কল্যাণ পরিষদের বিবৃতির পর প্রশাসনের অভিযানে জরিমানা হবিগঞ্জ যাত্রী কল্যাণ পরিষদের কমিটি গঠন, সভাপতি-জুয়েল,সম্পাদক-তৌহিদুল ইসলাম গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে নির্যাতিত সম্মাননা পেলেন রুবেল চৌধুরী নরওয়েতে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে পবিত্র কোরআন পোড়ানো ব্যক্তিকে সহযোগীতার হাত বাড়ালেন ওসি কামাল হারানো সন্তান-কে হজে গিয়ে ফিরে পেলেন মা বিএনপি নেতা কারাবন্দি, সন্তানের ভালোবাসা সীতাকুণ্ডে সন্ত্রাসী হান্নান কে অস্ত্র সহ গ্রেফতার ডাঃ মহিউদ্দিন হাইস্কুল এন্ড কলেজে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী পালিত

রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে সিটি,গোল করলেন আলভারেজ

ক্রীড়া ডেস্ক
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৮ মে, ২০২৩
  • ১০৬ বার পঠিত

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকেই রিয়াল মাদ্রিদের ওপর চড়াও ম্যানচেস্টার সিটি। গোটা ম্যাচজুড়ে খেললো কেবল যেন সিটিই আর দর্শক হয়ে চেয়ে রইলো রিয়াল। সিটির গোছালো ফুটবলের কোনো জবাব ছিল না কার্লো আনচেলোত্তি বাহিনীর। বার্নার্দো সিলভার জোড়া গোল, হুলিয়ান আলভারেজের এক গোলের সঙ্গে এডার মিলিতাওয়ের আত্মঘাতী গোলে রিয়াল মাদ্রিদকে ৪-০ গোলের ব্যবধানে উড়িয়ে ফাইনালে ইন্টার মিলানের সঙ্গী হলো পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি।

ঠিক এক মৌসুম আগে ম্যানচেস্টার সিটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালের টিকিট কাটে রিয়াল মাদ্রিদ। আর সেই ক্ষোভটাই যেন ঘরের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে উগরে দিল ম্যানচেস্টার সিটি। ২০২১/২২ মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচের শেষ মুহূর্তে দুই গোল করে অবিশ্বাস্য এক প্রত্যাবর্তন দেয় রিয়াল। আর তাতেই থমকে যায় সিটির ফাইনাল খেলার স্বপ্ন।

ক্যালেন্ডারের পাতা উল্টে এক বছর পেরিয়েছে। বুরুশিয়া ডর্টমুন্ড থেকে এর্লিং হালান্ডকে দলে ভিড়িয়েছে সিটিজেনরা। আর তাতেই অপ্রতিরোধ্য সিটি। সঙ্গে পেপ গার্দিওলার জগদ্বিখ্যাত কৌশল। নতুন মৌসুমে অপ্রতিরোধ্য ম্যানচেস্টার সিটি। সেমিফাইনালের প্রথম লেগে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠ থেকে ১-১ গোলে ড্র করে বেশ স্বস্তিতেই ছিলেন সিটিজেন কোচ গার্দিওলা। কেননা দ্বিতীয় লেগ যে ঘরের মাঠে। আর ঘরের মাঠে রিয়ালের কাছে কখনোই হারেনি সিটি। সেই পরিসংখ্যান ধরে রেখেছে সিটি। সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে রিয়ালকে এক প্রকার উড়িয়েই দিয়েছে সিটিজেনরা। শেষ তিন মৌসুমে মধ্যে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে উঠল ইংলিশ চ্যাম্পিয়নরা।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরুর বাঁশি বাজতেই বল দখল করে নিল সিটি। আর এরপরেই মুহুর্মুহ আক্রমণে রিয়াল মাদ্রিদকে কোণঠাসা করে ফেললো তারা। সপ্তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগও পায় স্বাগতিকরা। কিন্তু কেভিন ডি ব্রুইনের পাস পেয়ে বক্সে গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়াকে কাটিয়ে শট নেওয়ার জায়গা পাননি এর্লিং হালান্ড। পাস দেওয়ার মতো আশেপাশে কোনো সতীর্থও ছিল না তার।

এরপর ম্যাচের ২১তম মিনিটে কোর্তোয়ার অসাধারণ ক্ষিপ্রতায় বেঁচে যায় রিয়াল। মানুয়েল আকাঞ্জির ক্রসে ছয় গজ বক্সের মধ্যে থেকে জোরাল হেড করেন হালান্ড, ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান বেলজিয়ান গোলরক্ষক। দুই মিনিট পর আর পারেননি কোর্তোয়া। ডান দিক থেকে শাণানো আক্রমণে ডি ব্রুইনের পাস বক্সে ফাঁকায় পেয়ে জোরাল শটে দলকে এগিয়ে নেন পর্তুগিজ মিডফিল্ডার সিলভা।

গোল হজম করার পর যেন নিজেদের খুঁজে পায় রিয়াল। ভিনিসিয়াস জুনিয়র ও করিম বেনজেমা দুটি প্রতি আক্রমণের চেষ্টা করেন, যদিও গোলরক্ষকের পরীক্ষাও নিতে পারেননি তারা। এরপর ৩৫তম মিনিটে অনেক দূর থেকে বুলেট গতির শট নেন টনি ক্রুস। লাফিয়েও বলের নাগাল পাননি সিটি গোলরক্ষক এডারসন। তবে ভাগ্যের ফেরে বল লাগে ক্রসবারে।

প্রথমার্ধেই ম্যাচে ফেরার প্রবল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল রিয়াল। তবে প্রথমার্ধ শেষের আগেই রিয়ালের সে স্বপ্নের গুড়ে বালি দিয়ে দিলেন সিলভা। ইয়াকি গুন্দোয়ানের শট প্রতিপক্ষের পায়ে লেগে বল চলে যায় সিলভার কাছে, নিখুঁত হেডে জালে পাঠান তিনি। এতেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় সিটি। আর স্বপ্ন দেখতে শুরু করে ফাইনালের।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে শেষ বাধা পেরিয়ে যাওয়ার সময় ফাউলের শিকার হন ভিনিসিয়াস। ম্যাচে প্রথম হলুদ কার্ড দেখেন সিটির ডিফেন্ডার রুবেন দিয়াস। ওই ফ্রি কিকে গোল পেতে পারত রিয়াল কিন্তু ডেভিড আলাবার শটে বল শেষ সময়ে নিচু হয়ে ক্রসবার ঘেঁষে জালে জড়াতে যাচ্ছিল, কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান এডারসন।

ম্যাচের সময় যতই গড়াচ্ছিল রিয়ালের ফাইনাল খেলার স্বপ্ন ততই ফিকে হয়ে আসছিল। ম্যাচের ৭৬ মিনিটে এসে ম্যাচ থেকে পুরোপুরি ছিটকে যায় রিয়াল। বাঁ দিক থেকে ডে ব্রুইনের ফ্রি কিকে বক্সে কেউই ছোঁয়া দিতে পারেনি, তবে ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেই নিজেদের জালে বল পাঠান ডিফেন্ডার মিলিতাও।

আর ম্যাচের শেষ সময়ে এসে বদলি হিসেবে মাঠে নামা হুলিয়ান আলভারেজ দারুণ এক গোলে ব্যবধান ৪-০ করে সিটিকে নিয়ে যান ফাইনালে। দুই লেগ মিলিয়ে রিয়ালকে ৫-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।

নিজেদের ইতিহাসের প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপার লক্ষ্যে আগামী ১০ জুন তুরস্কের ইস্তানবুলে তিনবারের চ্যাম্পিয়ন ইন্টার মিলানের বিপক্ষে মাঠে নামবে ম্যানচেস্টার সিটি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা